বিশ দশকের প্রেম = নার্গিস আখতার কণক

সর্বশেষ সাহিত্য
                                            বিশ দশকের প্রেম
                                        ( নার্গিস আখতার কণক)
নিতুর টানা টানা হরিণের মত চোখ দুটো আজ বড় ক্লান্ত হয়ে গেছে।এই চোখ স্বপনের গড়া আর ভাংগা দেখতে দেখতে খুবই ক্লান্ত। আর কোন নতুন স্বপ্ন দেখার শক্তি পাচ্ছেনা।
      এই নিয়ে সে পাচবার প্রেমে ব্যর্থ হলো। হবে না কেন,এই বিশের দশকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর   সহজলভ্যতার দরুন,নিতুর পাঁচ প্রেমিক ই এর ফাইদা নিয়েছে।নিতু খুব সহজ সরল মন নিয়ে সততার সাথে প্রেমের মিছিলে নেমে পর পর পাঁচজনের কাছেই প্রতারিত হয়েছে।
সে এক করুন কাহিনী।সেই পাচজনের কাহিনী নিয়ে পাচখানা উপন্যাস লিখা যাবে।
এই বিশের দশকে, এসে নিতুর আশি শতাংশ বন্ধু বান্ধবদের প্রেমের বিয়ে।কিন্তু কারোরই প্রথম প্রেম না।নিতুর মত আবার কারো কারো প্রেমের সংখা নিতুর থেকেও বেশি।প্রেম করছে ছ্যাকা খাচ্ছে,করছে খাচ্ছে।এই যেন একবার না পারিলে দেখ শতবারের মত।প্রেমের পরীক্ষায় জয়ী হওয়ার থেকে অংশগ্রহণের খাতায় নাম লিখানোর প্রতিযোগিতা চলছে।এইভাবে চলতে চলতে, ওপাস থেকে ছেলেটি হয়তো চিন্তা করল প্রেমের খেলার সমাপ্তি টানার সময় এসেছে,এবার স্থির হওয়ার সময় এসেছে,বিয়ে করে সংসারি হবে।এপাসেও মেয়েটির বাসা থেকে বিয়ের চাপ দিচ্ছে,মেয়েটির ও সমাপ্তির সময় এসেছে।এভাবে দুইজনের মন ছক্কা ছক্কায় মিলে গেলেই  প্রেম বিয়েতে পরিনত হয়।তার পূর্বে যতই ব্যর্থতার গল্প লুকিয়ে থাকুক না কেন,সেই বিয়ের নাম হয়ে যায় প্রেমের বিয়ে।
নিতুর শৈশব কেটেছে 90 এর দশকে।নিতুর যতদূর মনে পরে  90 এর দশকে ও  দু একজন দেবদা পাওয়া যেত। নিতুর ছোট চাচ্চু,এক মেয়ের সাথে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে এখন অব্দি বিয়ে করেনি। নিতু শৈশবকালে পাশের বাসার এক বড় আপুর চিঠি আদানপ্রদান করে দিতো তার বাড়ির অংক শিক্ষকের কাছে।একদিন সেই আপু বাসায় ধরা খেলে জোর করে আপুকে এক বড় ব্যবসায়ীর সাথে বিয়ে দিয়ে দেয়। আপু এখন তিন বাচ্চা নিয়ে সুখে আছে।এখন আপু আর সেই অঙ্ক শিক্ষকের মাঝে বন্ধুত্যের সম্পর্ক।
কিন্তু এইবার নিতু ক্লান্ত শ্রান্ত মন নিয়ে আজ তিন চারদিন হল বিনিদ্র  রাত্রি  কাটাচ্ছে।পঞ্চম প্রেমে নিতু দেহ মন সর্বোচ্চ দিয়ে ভালবেসেছিল,নিজের বলতে কিছুই রাখেনি ভালবাসায় কোন দেয়াল রাখেনি। বিনিদ্র রাত্রি কাটিয়ে মনস্থির করেছে নিতু,পৃথিবী থেকে বিদায় নিবে।পঞ্চম জনকে দায়ী করে দেবদাসী হবে।
Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *