আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনার একটি ছোট সত্যি কাহিনী

বিশেষ সংবাদ সর্বশেষ

 

❝ হাসিনা, তোমাকে হেড স্যার ডেকেছেন…❞
‘হাসিনা প্রমাদ গুনলেন। এই রে ডেকেই ফেলল।’
তিনি জানেন, অম্বর আলী স্যার কেন ডেকেছেন। আজিমপুর গার্লস স্কুলের প্রধান শিক্ষক তিনি। জ্ঞানী এবং বিচক্ষণ বলে খ্যাতি আছে তাঁর। তাঁর কারণেই স্কুলের রেজাল্ট ভালো, সরকারি স্কুলের সাথে পাল্লা দিতে পারছে এই স্কুল।
হাসিনা কি করেছেন, তিনি জানেন। ক্লাশ টেনের ছাত্রী তিনি। স্কুলের একদিন টিফিন ছিল পঁচা। পঁচা মানে সত্যি সত্যি টক গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তিনি ক্লাশের সবাইকে বললেন, ‘এই কেউ খেয়ো না। সবগুলো বক্স দাও। হেডস্যারের রুমে রেখে আসবো।’
স্যার রুমে নাই। এই সুযোগে ক্লাশের সবার টিফিনের প্যাকেট একসংগে করে রেখে এলেন স্যারের চেম্বারের সামনে।
স্যার রেগে গেলেন। ‘এগুলো এখানে কে রেখেছে?’
‘হাসিনা, স্যার।’
‘ডেকে আনো তাকে।’
পিয়ন ছুটে এলো ক্লাশ টেনে। ‘হাসিনা আপা, আপনেরে স্যার কল দিছেন।’
হাসিনা গেলেন। সঙ্গে নিলেন টুলুকে। স্যার বললেন, ‘এইসব প্যাকেট এখানে রেখেছে কে?’
মাথা চুলকে ছিপছিপে হাসিনা চোখ দুটো করুণ করে বললেন, ‘আমরাই স্যার।’
‘কেন? পঁচে গন্ধ বেরোচ্ছে তো?’
‘আগে থেকেই পঁচা ছিল, স্যার। সেটা বোঝানোর জন্যই।’
স্যার নরম হলেন। বললেন, ‘ঠিক আছে একটা কমিটি করে দিচ্ছি। স্টুডেন্টদেরও একজন প্রতিনিধি থাকবে। টিফিন কমিটি।’
হাসিনা কাঁপতে কাঁপতে গিয়েছিলেন, হাসতে হাসতে ফিরে এলেন।

এই হাসিনাই আমাদের প্রিয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা- যিনি তাঁর বাল্যকাল থেকেই সকল ধরনের অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ছিলেন। লেখাটি কথা সাহিত্যিক আনিসুল হকের এবারের বইমেলার সর্বাধীক বিক্রিত উপন্যাস ‘আলো-আধারের যাত্রী’ থেকে নেওয়াl

আমাদের বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দীর্ঘ, সুস্থ ও কর্মময় জীবন, সুখ, শান্তি ও সাফল্য কামনা করি।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *