শেখ হাসিনাকে ট্রাম্পের অভিনন্দন: ক্ষিপ্ত হয়ে বি এন পির একজন সিনিয়র নেতা চেয়ার ভেঙে কার্যালয় ত্যাগ!

আন্তর্জাতিক সর্বশেষ

 

সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হয়ে টানা তৃতীয় মেয়াদে সরকার গঠনকারী আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রধানমন্ত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছেন বলে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। আর এই সংবাদে বিএনপির নেতাকর্মীরা হতাশা জানিয়েছেন। দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ রাগে একটি চেয়ার ভেঙে ফেলেছেন বলে জানা গেছে।

ছবি: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পাঠানো অভিনন্দন পত্র

বিএনপি কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিনন্দন জানানোর সংবাদটি গণমাধ্যমে প্রচারিত হওয়ার পরপরই দলীয় কার্যালয়ে তীব্র অসন্তোষ দেখা যায়। মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কার্যালয়ে উপস্থিত না থাকলেও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ সিনিয়র অনেক নেতাই উপস্থিত ছিলেন। তারা ভবিষ্যৎ কর্ম পরিকল্পনা নিয়ে আলাপ করছিলেন। বেসরকারি একটি টিভি চ্যানেলের স্ক্রলে অভিনন্দন জানানোর সংবাদটি প্রচারিত হচ্ছিলো তখন। একজন জেলা পর্যায়ের নেতা বিষয়টি শীর্ষনেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে নিশ্চিত হওয়ার জন্য চ্যানেল বদলে দেখেন সবখানেই সংবাদটি প্রচারিত হচ্ছে।

তাৎক্ষণিক হতাশা ব্যক্ত করে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ চুপ করে যান। কিন্তু রিজভী আহমেদ চুপ থাকতে না পেরে ত্বরিৎগতিতে উঠে পড়েন চেয়ার ছেড়ে। রাগের চোটে হাতের কাছে কিছুই না পেয়ে চেয়ারটি তুলে ছুঁড়ে মারেন একপাশে। দেয়ালে লেগে হাতল ভেঙে পড়ে চেয়ারটির! সবাই হতভম্ব হয়ে যান এমন প্রতিক্রিয়া দেখে। গয়েশ্বর চন্দ্র রায় দ্রুত উঠে রিজভীকে ধরে ফেলেন, তাকে আত্মসংবরণ করতে বলে একপাশে নিয়ে যান। একজন কর্মচারীকে ঠান্ডা পানি আনতে পাঠিয়ে দেন। কিন্তু রিজভী দ্রুত কার্যালয় ছেড়ে বেরিয়ে যান বাইরে।

এ বিষয়ে বিএনপি কার্যালয়ে বিস্তারিত জানতে চাইলে তারা ‘অনুমতি নাই’ বলে উত্তর দেন। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন পুরনো কর্মকর্তা বলেছেন, স্যাররা আশা করেছিলেন অন্য সব দেশ এই নির্বাচনকে সাধুবাদ জানালেও যুক্তরাষ্ট্র জানাবে না। কারন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূত নিজেও এই নির্বাচন সম্পর্কে ‘ইতিবাচক’ ছিলেন না, নির্বাচনের পরে সাক্ষাতে তার শরীরি ভাষায় তেমনই মনে হয়েছিল। এমতাবস্থায় স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্টের এমন বার্তায় হতাশ আমাদের স্যাররা।

উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের ডেপুটি স্পোকসপারসন রবার্ট পালাডিনো এক বিবৃতিতে বলেন, নির্বাচনে ভোট দেওয়া কোটি বাংলাদেশিকে অভিনন্দন জানায় যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি ২০১৪ সালের নির্বাচন বর্জনের পর এবারের নির্বাচনে সব দলের
অংশগ্রহণ ‘ইতিবাচক অগ্রগতি’ হিসেবে দেখা হচ্ছে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৫৯টি আসনে জয় পেয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। জোটগতভাবে তারা পেয়েছে ২৮৮টি আসন। অন্যদিকে তাদের প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপি ও তাদের জোটসঙ্গীরা সব মিলিয়ে আটটি আসনে জয় পেয়েছে। নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় নিয়ে টানা তৃতীয় ও চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন শেখ হাসিনা।

প্রসঙ্গত, এর আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট, সৌদি আরবের বাদশা সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ এবং ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানসহ অনেক দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *