ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট ইসিবি চত্বর থেকে ব্রিজের নিচে ছিনতাই জোন কাজেই সাবধান

বিশেষ সংবাদ সর্বশেষ

 

সোয়েব শরিফুলঃ-  বিশেষ করে যেসব যেসব আপুরা এবং মায়েরা ভোর সকাল এবং রাত 9 টা থেকে 11 টার ভেতর ইসিবি চত্বর মাটিকাটা হয়ে বিভিন্ন জায়গায় যাতায়াত করে থাকেন।

গতকাল অর্থাৎ 18 জানুয়ারি 2019 আমি এবং আমার মা সিএমএইচে আমার অসুস্থ নানু কে দেখতে যাওয়ার জন্য ইসিবি‌ চত্বর থেকে রিক্সা ভাড়া করে সিএমএইচ এর উদ্দেশ্যে রওনা করি আমাদের রিক্সা যখন ঠিক মাটিকাটা ওভারব্রিজ অর্থাৎ ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল যাওয়ার যে পকেট গেট অতিক্রম করবে ঠিক এই জায়গাটায় আমাদের রিক্সাটি ছিল বাম পাশে কারণ আমরা ক্যান্টনমেন্টের ভেতরে ঢুকবো ঠিক ডান দিক থেকে একটি সাদা মেবি এক্স করোল্লা গাড়ি হবে আমাদের রিক্সা কে খুবই সুকৌশলে চাপ দেয় ডান থেকে বাম সাইড এর দিকে এবং আমি ভাবি এটি ভুল করে হয়েছে তারা হয়তোবা লেইন পরিবর্তন করছে এমত অবস্থায় গাড়ির সামনের দরজার ছিল আমার আম্মু বরাবর ড্রাইভার এর পাশে থাকা লোকটি তার হাত বের করে আম্মুর ব্যাগের একটি কর্নার ধরে টান দিল কিছু বুঝে উঠার আগেই তারা ব্যাগটি নিয়ে গাড়িটি টান দিল এবং ফ্লাইওভারের উপর উঠে গেল এবং দ্রুতগতির সাথে তারা মিলিয়ে গেল।
আল্লাহর কাছে অশেষ শুকরিয়া যে আমরা রিকশা থেকে আমরা পড়ে যায় নি অথবা রিক্সাটি উল্টে যায়নি অথবা আমাদের কোনো ক্ষতি হয়নি এবং সব থেকে খারাপ লেগেছে আমি ছেলে হয়েও কিছু করতে পারলাম না কারণ কিছু বুঝে উঠার আগেই ঘটনাটি ঘটে গেল ।
এর পর শুনলাম এই রাস্তাটুকু ভিতরে বিশেষ করে ইসিবি চত্বর থেকে মাটিকাটা ওভারব্রিজ এইটুকু ভেতরে বেশ কয়েক দিনে এবং ইদানিং এই গাড়ি ( একটি সাদা এক্স করলা এবং একটি কালো প্রাইভেট কার) এবং বেশ কয়েকটি বাইক এগুলো দিয়ে এসে ছোপ মেরে ব্যাগ মোবাইল ফোন ইত্যাদি মূল্যবান সামগ্রী ছিনতাই করার ঘটনা খুব বেড়ে গিয়েছে এমতাবস্থায় রাস্তাটুকু যারা ব্যবহার করেন তারা একটু সাবধানে চলাফেরা করবেন বিশেষ করে আপুরা এবং মায়েরা ছিনতাইকারীদের টার্গেট থাকে।

আমি স্তম্ভিত কারণ অত্র এলাকাটি ক্যান্টনমেন্টে এবং দুইটি এমপি চেকপোস্ট খুবই সন্নিকটে এমন একটি সিকিওর জায়গায় ছিনতাইকারীরা কিভাবে ছিনতাই করার সাহস পায় আমার বোধগম্য নয়।
ফর্মালিটিস রক্ষার জন্য রীতিমত ক্যান্টনমেন্ট থানায় গিয়ে 100 টাকার বিনিময়ে একটি জিডি করে আসবো আমি জানি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পুলিশ সোচ্চার হলে এদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে এবং খুবই অল্পসময় তাদেরকে ট্রেস করতে পারে কিন্তু……… আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন 🙂

আশা করি রাস্তায় নামার পর এবং রিকশা চলাচল করার পর বাসে চলাচল করার সময় সবাই সচেতন থাকবেন এবং আপনার আশেপাশের সজাগ দৃষ্টি রাখবেন সবাই সুস্থ থাকবেন নিরাপদে থাকবেন 🙂
Share please for your or your friends and family concern

#Bangladesh_police
#Bangladesh_rapid_action_battalion_RAB
#Rab4
#Bangladesh_crime_prevention_unit
#Bangladesh_home_ministry
#Military_police
#Bangladesh_army
#DJFI
#RAB
#armed_Police_battalion

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *